৯০ দেশের অংশগ্রহণ নেই রাশিয়া

1

সুইজারল্যান্ড জানিয়েছে, ইউক্রেনে টেকসই শান্তির পথ খুঁজে বের করার লক্ষ্যে একটি সম্মেলনে যোগ দিতে বিশ্বের ৯০টি দেশ নাম লিখিয়েছে। তবে এতে রাশিয়া থাকবে না। খবর আল জাজিরার। রাজধানী বার্নে সুইস প্রেসিডেন্ট ভায়োলা আমহার্ড সোমবার বলেন, ১৫-১৬ জুনের এ সম্মেলনের লক্ষ্য ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের অবসান। প্রায় ২৮ মাস আগে রুশ বাহিনী ইউক্রেন আক্রমণ করে। কিয়েভের অনুরোধে সুইজারল্যান্ড ইউক্রেন শান্তি সম্মেলনের আয়োজন করছে। বার্ন আগেই জানিয়েছিল, অংশগ্রহণে আগ্রহী নয় বলেই রাশিয়াকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। এবার তিনি জানালেন, রাশিয়া এ শান্তি সম্মেলনে থাকছেন না। সুউস সরকার এক বিবৃতিতে জানায়, ভবিষ্যতের শান্তি প্রক্রিয়ায় রাশিয়া ও ইউক্রেনকে কীভাবে যুক্ত করা যায়, সেটি নির্ধারণে যৌথ রোডম্যাপ ঠিক করা-ই হবে সম্মেলনের উদ্দেশ্য।
আমহার্ড জানান, জাতিসংসহ বিভিন্ন সংস্থা থেকে অনেকে অংশ নেবেন। অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর অর্ধেকই নিজ নিজ সরকারের প্রধানকে এ সম্মেলনে পাঠাচ্ছে। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ও জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস সম্মেলনে অংশ নেবেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন না থাকলেও হোয়াইট হাউস ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস ও জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভানকে পাঠাচ্ছে। ১৬০টি দেশকে আমন্ত্রণ পাঠানোর পর একশরও কম সংখ্যক দেশ অংশ নিচ্ছে, এ নিয়ে সুইজারল্যান্ড হতাশ কি না, জানতে চাইলে বার্ন তা অস্বীকার করেন। আমন্ত্রণ তালিকায় শীর্ষ পশ্চিমা শক্তিগুলোর চেয়ে মস্কোর সঙ্গে ভালো সম্পর্ক রয়েছে এমন দেশগুলোর মধ্যে সমর্থন জোগাড় করার চেষ্টা করা হয়েছে। পশ্চিমা ক্ষমতাধর দেশগুলোর চেয়ে মস্কোর সঙ্গে সম্পর্ক ভালো রয়েছে, এমন দেশগুলোকে আমন্ত্রণ তালিকায় রাখা হয়েছে। তুরস্ক ও দক্ষিণ আফ্রিকা সম্মেলনে অংশ নেওয়ার ইঙ্গিত দেয়নি। আর ভারত থাকবে, তবে তা কোন মাত্রায় তা অস্পষ্ট।