শিল্পকলা একাডেমির নির্বাচনের পুনঃতফসিল দাবি সংস্কৃতিকর্মীদের

0

নিজস্ব প্রতিবেদক

নতুন সংস্কৃতিকর্মীদের সদস্যভুক্ত করে সাধারণ সভা আহবানের পর শিল্পকলা একাডেমির নির্বাচনের পুনঃতফসিলে দাবি জানিয়েছেন সংস্কৃতিকর্মীরা।
গতকাল সোমবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব চত্বরে একুশ মেলা পরিষদ, চট্টগ্রামের ব্যানারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও সমাবেশ থেকে তারা এই দাবি জানান।
বৃহত্তর চট্টগ্রাম সংগ্রাম কমিটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা শিল্পী শাহরিয়ার খালেদের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক রাশেদ হাসান, চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের মহাসচিব কামাল উদ্দিন, একুশ মেলা পরিষদের সমন্বয়ক চৌধুরী জগলুল হক, শিল্পী এমরান ফারুকী, সংগঠক হাবিব বিপ্লব, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সংগঠক কাজী রাজিশ ইমরান।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত ছয় বছরে চট্টগ্রামে শত শত নতুন সংস্কৃতিকর্মী চর্চার সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমির মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি তাদের একাডেমির সদস্য করতে আগ্রহ দেখায়নি। তিন বছরের জন্য নির্বাচিত কমিটি ছয় বছর দায়িত্ব পালন করেছে। এ সময়ে তারা একটা সাধারণ সভা করেনি।
তাঁরা আরও বলেন, গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রতিবছর সাধারণ সভা এবং সভায় বাজেট প্রণয়নের কথা রয়েছে। কিন্তু একটাও সাধারণ সভা না করে তড়িগড়ি করে কোরবানি ঈদের আগে শিল্পকলা একাডেমির নতুন করে নির্বাচনের আয়োজন করেছে। ক্ষমতা কুক্ষিগত করতে প্রহসনের এই নির্বাচন করা হচ্ছে।
বক্তারা আরও বলেন, নতুন সংস্কৃতিকর্মীদের শিল্পকলা একাডেমিতে সদস্য হওয়ার অধিকার রয়েছে তাঁদের। কিন্তু কোন এক অদৃশ্য কারণে এই সুযোগ তাদের দেওয়া হচ্ছে না। পাশাপাশি অনেক পুরোনো সদস্যকেও সদস্য নবায়নের সুযোগ দেওয়া হয়নি। অবিলম্বে নতুন সংস্কৃতিকর্মীদের সদস্য হিসেবে অন্তভুক্ত করার পাশাপাশি একটা সাধারণ সভা আহবান করার দাবি জানাচ্ছি। সাধারণ সভায় সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে নির্বাচনের পুনঃতফসিল ঘোষণা করা হোক।
এতে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা গবেষক জামসেদ উদ্দিন, সংগঠক সিঞ্চন ভৌমিক, সংগঠক হাবিব বিপ্লব, ছাত্রনেতা এম কাউছার উদ্দিন, সাংবাদিক রোকন উদ্দিন, সংস্কৃতিকর্মী শাহিনা আকতার, মামুরা মমতাজ প্রমুখ।