শিক্ষক হারাধন চন্দ্র প্রসাদ স্মরণে স্মৃতিচারণ সভা

4

সন্দ্বীপ প্রতিনিধি

সাউথ সন্দ্বীপ হাই স্কুলের সাবেক প্রধান শিক্ষক হারাধন চন্দ্র প্রসাদ স্মরণে স্মৃতিচারণ সভা ও মৎস্যমুখী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। গত শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টায় অনুষ্ঠিত এতে সভাপতিত্ব করেন সাউথ সন্দ্বীপ হাই স্কুলের ষাটের দশকের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক মো. আবুল কাসেম।
অনুষ্ঠানে পবিত্র গীতা থেকে পাঠ করেন অমৃতা দাশ শশী। অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের অধ্যাপক ড. প্রশান্ত কুমার ব্যানার্জী। পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন প্রয়াতের ছেলে ইঞ্জিনিয়ার চন্দ্রধর প্রসাদ ও মেয়ের জামাই সুকান্ত বিকাশ দাশ। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সিএমএইচ এর কনসালটেন্ট ডা. সঞ্জয় কুমার শীল, চট্টগ্রাম মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সুরাইয়া বেগম, চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজের দর্শন বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক নীলুফার আখতার, সারিকাইত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম পনির, তাঁর বাল্য বন্ধু কাজী আবদুল ওয়াছেক, পিডিবির সাবেক অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী কানাই চন্দ্র দাশ, চট্টগ্রাম তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ম্যানেজার ইঞ্জিনিয়ার মুজিবুর রহমান, পটিয়া জিরি খলিল-মীর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবদুল হান্নান, কাজী আফাজ উদ্দিন আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. আলাউদ্দিন, সাতকানিয়া নলুয়া দ্বিজেন্দ্রলাল কারণ উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক স্বপন চন্দ্র সাহা, ওয়েল গ্রæপের ডিজিএম আলমগীর সারোয়ার, মৎস্য অধিদপ্তর ঢাকার কর্মকর্তা মো. মন্জুর আলম, সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষক আ ন ম ফরিদ উদ্দিন, হাটহাজারী ফতেহপুর হাই স্কুলের সাবেক শিক্ষক রতন ব্যানার্জী, নিকটাত্মীয় রাজীব দত্ত, সন্দ্বীপ ল’ স্টুডেন্টস ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা এম হাসান খান, তন্ময় দাশ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে প্রয়াতের সম্মানে দাঁড়িয়ে ১ মিনিট নীরবতা পালন ও সর্বজনীন প্রার্থনা করা হয়।
উল্লেখ্য, ১৯৭০ সালে সাউথ সন্দ্বীপ হাই স্কুল থেকে এসএসসি পাস করা হারাধন চন্দ্র প্রসাদ সাউথ সন্দ্বীপ আবেদা ফয়েজ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন ১৯৭৬ সালের ১ জানুয়ারি। তিনি সাউথ সন্দ্বীপ হাই স্কুলে বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী শিক্ষক হিসেবে ১৯৭৮ সালে, সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসেবে ১৯৯৮ সালে এবং প্রধান শিক্ষক হিসেবে ২০০৩ সালে যোগদান করেন। অবসরে যান ২০১৩ সালে। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি ছিলেন তিন সন্তানের পিতা। ছেলে চন্দ্রধর প্রসাদ, বি.এসসি ইঞ্জিনিয়ার, বড় মেয়ে রুনা প্রসাদ বিএসএস এবং ছোট মেয়ে লুনা প্রসাদ বিএ (অনার্স), এমএ (মাস্টার্স) সম্পন্ন করেন। স্ত্রী মীরা প্রসাদ একজন গৃহিনী।