লাদেনপুত্রের সন্ধানে ১ মিলিয়ন ডলার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

32

আল কায়েদার সাবেক নেতা ওসামা বিন লাদেনের ছেলে হামজা বিন লাদেনের সন্ধান চেয়ে ১ মিলিয়ন ডলারের পুরস্কার ঘোষণা করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের বরাত দিয়ে শুক্রবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়। খবরে বলা হয়, হামজা বিন লাদেন ইসলামিক জঙ্গি গোষ্ঠীর একজন প্রধান নেতা। তিনি তার বাবা ওসামার হত্যার জন্য আমেরিকা ও পশ্চিমা দেশগুলোকে দায়ী করে বক্তব্য দিয়েছেন। একই সঙ্গে এর জন্য আমেরিকা ও পশ্চিমা দেশগুলোর ওপর হামলা চালাতে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে অজ্ঞাত স্থান থেকে অডিও ও ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছেন তিনি। ২০১১ সালে পাকিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ বাহিনীর হাতে ওসামা বিন লাদেন নিহত হন। ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে হামলার জন্য তাকে প্রধান হোতা হিসেবে উল্লেখ করা হয়। ওই হামলায় প্রায় ৩ হাজারের মতো মানুষের প্রাণহানি ঘটে।
সন্ত্রাসী কার্যক্রমে জড়িত থাকার দায়ে ৩০ বছর বয়েসী হামজা বিন লাদেনকে দুই বছর আগে ‘বৈশ্বিক সন্ত্রাসী’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। জঙ্গি নেতা মোহাম্মেদ আত্তার মেয়েকে বিয়ে করেছেন হামজা। ২০০১ সালে ১১ সেপ্টেম্বর লাদেনের পরিকল্পনা অনুযায়ী, যে দু’টি প্লেন ছিনতাই করে আল কায়েদা; যা আছড়ে পড়ে নিউইয়র্কের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের ওপর। আত্তা সেই অপহরণকারীদের অন্যতম একজন। স্টেট ডিপার্টমেন্টের বিবৃতিতে বলা হয়, ২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাবোতাবাদে অভিযানে নিহত হওয়ার সময় ওসামা বিন লাদেনের আবাসস্থলে একটি চিঠি পাওয়া যায়। সেই চিঠিতে ইঙ্গিত রয়েছে, ওসামার অবর্তমানে আল কায়েদার হাল ধরবেন হামজা। ওসামার জীবিত তিন স্ত্রীর মধ্যে খাইরিয়া সাবারের ছেলে হামজা বেশ প্রিয় ওসামার। এ জন্য তাকে নিজেই গড়ে তুলেন তিনি। স্টেট ডিপার্টমেন্টের এক মুখপাত্র বলেন, আমাদের বিশ্বাস, সে (হামজা) আফগান-পাকিস্তান সীমান্তে আছে। সে ইরান সীমান্ত পার হবে। তবে মধ্য দক্ষিণ এশিয়ার যেকোনো জায়গায় সে থাকতে পারে। হামজা তার মায়ের সঙ্গে ইরানে বেশ কয়েকবছর কাটিয়েছেন বলেও জানায় যুক্তরাষ্ট্র।