রামুতে কাজলকে হারিয়ে চেয়ারম্যান হলেন ভূট্টো

8

রামু প্রতিনিধি

কক্সবাজারের রামু উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সিরাজুল ইসলাম ভূট্টো, ভাইস চেয়ারম্যান পদে আবদুল্লাহ সিকদার এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মুসরাত জাহান মুন্নী বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নজরদারি ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে গতকাল বুধবার ইভিএমে রামু উপজেলার ভোট অনুষ্ঠিত হয়। এতে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০ জন প্রার্থী অংশ নেন।
ভোটগ্রহণ শেষে বেসরকারি ফলাফলে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হন সিরাজুল ইসলাম ভূট্টো (মোটরসাইকেল)। তিনি পেয়েছেন ৪৩ হাজার ৮০৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী সোহেল সরওয়ার কাজল (আনারস) ১৬ হাজার ৯৮৪ ভোট এবং মোহাম্মদ ইউসুফ ২ হাজার ১২৪ ভোট পেয়েছেন।
ভাইস চেয়ারম্যান পদে মো. আবদুল্লাহ সিকদার (চশমা) ২৪ হাজার ৭৪৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন (তালা) ১২ হাজার ৪০৮ ভোট। এছাড়া মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন (উড়োজাহাজ) ১০ হাজার ৪৮৬ ভোট, মোস্তাক আহমদ (টিউবওয়েল) ৯ হাজার ১০৪ ভোট ও কায়সার কামাল চৌধুরী শিমুল (মাইক) ৬ হাজার ১৪২ ভোট পেয়েছেন।
মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মুসরাত জাহান মুন্নী (প্রজাপতি) ৩৪ হাজার ৫৩৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আফসানা জেসমিন পপি (কলস) ২৭ হাজার ৯৯৭ ভোট পেয়েছেন।
চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী সিরাজুল ইসলাম ভূট্টো ২০১১ ও ২০২২ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। রামু উপজেলা পরিষদের এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে গত ২৯ এপ্রিল ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করেন তিনি।
অপরদিকে এ নির্বাচনে পরাজিত সোহেল সরওয়ার কাজল জাতীয় সংসদের হুইপ ও কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমলের বড় ভাই। সোহেল সরওয়ার কাজল রামু উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। তিনি ২০০৩ সালে ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, ২০০৯ ও ২০১৯ সালে দুইবার রামু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু-ঈদগাঁও) আসন থেকে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে ২০২৩ সালের ১৯ নভেম্বর উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ ছাড়েন সোহেল সরওয়ার কাজল।
উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী আবদুল্লাহ সিকদার পেশায় ব্যবসায়ী। এছাড়া উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী মুসরাত জাহান মুন্নী রামু উপজেলা পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা।
রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রাশেদুল ইসলাম জানান, রামুতে শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা হয়নি। নির্বাচনে উপজেলার ১১ ইউনিয়নের ৬৪ ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার ছিলো। ভোট গ্রহণকালে সার্বক্ষণিক মাঠে ছিলেন ১১ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। পাশাপাশি মাঠ পর্যায়ে ভোটের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে নিয়োজিত ছিলেন বিপুল সংখ্যক বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশ সদস্য।
উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মহিউদ্দিন জানান, রামু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ভোটার ১ লাখ ৮৬ হাজার ৯৫১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯৯ হাজার ১২৫ এবং মহিলা ভোটার ৮৭ হাজার ৮২৬ জন। ১১ ইউনিয়নে ৬৪টি ভোটকেন্দ্রের ৪৩৪টি কক্ষে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন ভোটাররা। প্রথমবার রামু উপজেলায় ইভিএমে ভোট দিতে পেরে তারা উৎফুল্ল ছিলেন।