রাজস্থলীতে চেয়ারম্যান উবাচ মারমা অংনুচিং

36

সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে রাজস্থলী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ করা হয়। তবে কয়েকটা ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল খুবই কম। ভোট গ্রহণ শেষে সন্ধ্যায় ভোট গণনা শুরু হয়। কেন্দ্রগুলো দুর্গম হওয়াতে ও মোবাইল নেটওয়ার্ক যোগাযোগ না থাকায় ফলাফল দিতে বিলম্ব হওয়ায় মঙ্গলবার ৮ টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় হতে পূর্ণাঙ্গ ফলাফল জানানো হয়। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক ২নং গাইন্দ্যা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান উবাচ মারমা উপজেলা চেয়ারম্যান বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
২য় ধাপে অনুষ্ঠিত ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১২টি কেন্দ্রে তিনি সর্বমোট ৯,০৭০ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী শাক্য মিত্র তঞ্চঙ্গ্যা ২,৩৮৮ ভোট পেয়েছেন। অপরদিকে পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান অংনুচিং মারমা টিউবওয়েল প্রতীক নিয়ে ৫,৯৫১ ভোট পেয়ে ভাইস চেয়াম্যান নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগের নেতা স্থানীয় পত্রিকার প্রতিনিধি হারাধন কর্মকার ৫,২২৮ ভোট পান। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮,০০২ ভোট পেয়ে প্রজাপতি প্রতীক নিয়ে উচসিন মারমা নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ফুটবল প্রতীকে রাজু আক্তার ৩,২৩৭ ভোট পেয়েছেন।
এদিকে অংনুচিং মারমা জানান, আমি বিপুল ভোটের ব্যবধানে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় মহান সৃষ্টিকর্তার নিকট শুকরিয়া জ্ঞাপনের পাশাপাশি ভোটারদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। উৎসবমুখর পরিবেশে এ নির্বাচন হওয়ায় উপজেলা প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশিনারকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি। রাজস্থলী উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার উৎপল বড়ুয়া বলেন, ভোট কেন্দ্র গুলোতে ভোটাররা নির্ভয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। নির্বাচনের দিন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিজিবি, সেনাবাহিনী ও পুলিশসহ বিপুল সংখ্যক আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য নিয়োজিত থাকায় কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।