‘যথাসময়ে যথাস্থানে’ ভারতীয় হামলার জবাব দেওয়া হবে : পাকিস্তান

41

যথাসময়ে ও যথাস্থানে নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে পাকিস্তানি ভূখন্ডে বিমান হামলার জবাব দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে পাকিস্তান। সে দেশের জাতীয় নিরাপত্তা বিভাগ মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে এক বিশেষ বৈঠকের পর দেওয়া বিবৃতিতে এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।
১৪ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) পুলওয়ামাতে আরডিএক্স বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ি নিয়ে ‘সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স’র গাড়িবহরে আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়। এতে বহরের ৭০টি গাড়ির মধ্যে একটি বাস সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে যায়। প্রাণ হারায় বাহিনীর অন্তত ৪৪ সদস্য।
পাকিস্তানের প্রত্যক্ষ ইন্ধনে ওই হামলা সংঘটিত হয়েছে দাবি করে তখন থেকেই সামরিক হামলার হুমকি দিয়ে আসছিলো ভারত। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, সেই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার ভোররাত সাড়ে ৩টা নাগাদ ১২টি মিরাজ ২০০০ যুদ্ধবিমান পাকিস্তানের জঙ্গি ঘাঁটি লক্ষ্য করে লেজার নিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থার সাহায্যে ১০০০ কেজি বোমাবর্ষণ করে। নিরাপত্তা কমিটি এক বিবৃতিতে জানায়, ‘ভারত আগ্রাসন চালিয়েছে আর পাকিস্তান অবশ্যই যথাযথ সময়ে নিজেদের পছন্দ অনুযায়ী কোনও স্থানে এর জবাব দেবে।’ বিবৃতিতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সশস্ত্র বাহিনী ও জনগণকে যেকোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছেন। ‘তিনি বিশ্বনেতাদের সামনে ভারতের এই দায়িত্বজ্ঞানহীন নীতি উন্মোচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’ মঙ্গলবার এনএসসির বৈঠকে অংশ নেন পাকিস্তানের জয়েন্ট চিফ অব স্টাফ কমিটির চেয়ারম্যান জেনারেল জুবাইর মাহমুদ হায়াত, সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল জাফর মাহমুদ আব্বাসি, বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মুজাহিদ আনোয়ার খানসহ মন্ত্রিসভার সদস্যরা। ভারতীয় হামলার জবাবে পাকিস্তান বিমান বাহিনীর ত্বরিত পদক্ষেপের প্রশংসা করেন ইমরান। বুধবার ন্যাশনাল কমান্ড কর্তৃপক্ষের সঙ্গে জরুরি বৈঠক ডেকেছেন তিনি।