মহানগর বিএনপির দুই সদস্যের কমিটি ঘোষণা

13

নিজস্ব প্রতিবেদক

অনেক জল ঘোলার পর চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটিতে সাবেক যুগ্ম আহব্বায়ক এরশাদ উল্লাহকে আহব্বায়ক এবং সাবেক ছাত্রদল নেতা নাজিমুর রহমানকে সদস্য সচিব করা হয়েছে। নগর বিএনপির কমিটি বিলুপ্ত হওয়ার আগেই এই দুই নেতা নেতৃত্বে আসছেন এমনটা আভাস ছিল। শেষ পর্যন্ত তা সত্য হলো। প্রায় ৮ বছর পর মহানগর বিএনপির দায়িত্ব থেকে বাদ পড়েছেন সদ্য সাবেক আহব্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন ও সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর।
গতকাল রবিবার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবীর রিজভী স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কমিটির কথা জানানো হয়।
নগর বিএনপির নেতৃত্বে পরিবর্তন আসছে, এমন আভাস অনেক আগে থেকেই ছিল। দুই বছর আগেই একটি ভার্চুয়াল সভাতে তারেক রহমান সেটা প্রকাশও করেছিল। সেই সময়ে নেতাদের সাথে আলাদা আলদাভাবে কথাও বলেছিল তারেক রহমান। তখন থেকেই কমিটি বিলুপ্তির বিষয়টি সামনে আসে। যদিও রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে তখন ডা. শাহাদাত হোসেন ও আবুল হাশেম বক্করকে আরও কিছুদিন থাকার প্রয়োজনীয়তা মনে করে দল। কমিটি বিলুপ্ত হওয়ার পর এরশাদ উল্লাহ-নাজিমুর রহমান আলাদা কর্মসূচি পালন করলে আলাদা বলয়ের বিষয়টি আবার সামনে আসে।
সর্বশেষ গত শনিবার রাতে পদপ্রত্যাশীরা ছুটে যান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর বাসায়। সেখানে গভীর রাত পর্যন্ত চলে কমিটি সংক্রান্ত আলোচনা। আর আজ রবিবার সকালে এরশাদ উল্লাহ ও নাজিমুর রহমানের আংশিক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্র।
গত ১৩ জুন নগর বিএনপির আহব্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। এর আগে ২০২০ সালের ২৩ ডিসেম্বর ডা. শাহাদাত হোসেনকে আহব্বায়ক ও আবুল হাশেম বক্করকে সদস্য সচিব করে ৩৯ সদস্যের এই কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির নেতৃবৃন্দকে দ্রুততম সময়ে নগরের থানা ও ওয়ার্ড কমিটি পুনর্গঠনের নির্দেশনা দেয় কেন্দ্র। কিন্তু কয়েক দফা উদ্যোগ নিলেও তা সম্ভব হয়নি। ২০২১ সালের অক্টোবরে পুনর্গঠন প্রক্রিয়ার শেষ পর্যায়ে এসে কেন্দ্রের নির্দেশে তা স্থগিত করা হয়।
তারও আগে ২০১৬ সালের ৬ আগস্ট ডা. শাহাদাতকে সভাপতি ও আবুল হাশেম বক্করকে সাধারণ সম্পাদক করে ৩ সদস্যের কমিটি করা হয়। ২০১৭ সালের ১০ জুলাই ২৭৫ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। এছাড়া ২০১০ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৬ সালের আগস্ট পর্যন্ত আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী সভাপতি এবং ডা. শাহাদাত হোসেন সাধারণ সম্পাদক ছিলেন নগর বিএনপির। উত্তাল রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে দলের নেতৃত্ব দেন তারা।