ভারতে বন কর্মকর্তার উপর হামলা : গ্রেপ্তার ১৬

20

ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যে দায়িত্বরত এক নারী বন কর্মকর্তাকে দলবেঁধে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় ১৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিবিসি জানায়, রবিবার পুলিশ এবং বনরক্ষীদের সামনেই ওই হামলার ঘটনা ঘটে। বন কর্মকর্তা সি অনিতা ওই দিন তার দল নিয়ে কুমারাম ভীম আসিফাবাদ জেলায় বনবিভাগের খালি জায়গায় বৃক্ষ রোপণ করতে গিয়েছিলেন। হঠাৎ করেই একদল লোক লাঠি হাতে বন বিভাগের লোকজনের উপর হামলে পড়ে। অনিতা ট্রাক্টরের উপর দাঁড়িয়ে তাদের থামানোর চেষ্টা করলে কয়েকজন লাঠি দিয়ে তার মাথায় বাড়ি দিতে শুরু করে। রক্তাক্ত অনিতাকে পরে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কেউ একজন মোবাইলে মারধরের ওই ঘটনা ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করেন। মুহূর্তেই ভিডিওটি ভাইরাল হয় এবং ভারতীয়রা ক্ষোভে ফেটে পড়েন।
অনিতা তার উপর হামলাকারীকে সনাক্ত করতে পেয়েছেন। তিনি তেলেঙ্গানার ক্ষমতাসীন দল টিআরএস’র বিধায়ক কোনেরু কোনাপ্পার ভাই জেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কোনেরু কৃষ্ণা।
তার নেতৃত্বেই উত্তেজিত জনতা বন কর্মকর্তাদের উপর হামলা করে বলে জানায় এনডিটিভি। অনিতার উপর হামলা নিয়ে হইচই পড়ে গেলে টিআরএস থেকে এ ঘটনার সমালোচনা করে টুইট করা হয়। একই সঙ্গে নিজেদের লোকের পক্ষে সাফাই গাইতে গিয়ে দলের এক মন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, “বন কর্মকর্তারা আদিবাসী কৃষকদের ফসল ধ্বংস করে ফেলছিল। কোনেরু কৃষ্ণা ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে তাদের পক্ষ নিয়েছিলেন।
“বন অধিদপ্তর স্থানীয় কৃষকদের ভয় দেখাচ্ছে এবং জোর করে তাদের জমি বাজেয়াপ্ত করছে।” অনিতার উপর হামলাকে তিনি নিছক ‘দুর্ঘটনা’ বলেও বর্ণনা করেছেন। কোনেরু কৃষ্ণাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তার হওয়ার আগে তিনি জেলা পরিষদ থেকে পদত্যাগ করেছেন।