বিএনপি নেতা শামীম শাহাদাতসহ ৩৪ জনের বিচার শুরু

2

নগরের কোতোয়ালী থানার বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম ও নগর বিএনপির সাবেক আহŸায়ক ডা. শাহাদাত হোসেনসহ ৩৪ জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল সোমবার চট্টগ্রামের দ্বিতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আমিরুল ইসলামের আদালতে এই অভিযোগ গঠন করা হয়। খবর বাংলানিউজের
এ মামলায় শামীম ও শাহাদাত ছাড়াও নগর বিএনপির সাবেক সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, বিএনপি কর্মী শরিফুল ইসলাম, মো. সেলিম, মো. আলী, আবুল বশর, নুরুল ইসলাম, মো. আলমগীর, রানা ভুঁইয়া, মহিউদ্দিন, আজাদুল ইসলাম, আবদুল মান্নান, মো. ইলিয়াস, আবদুল মোতালেব, কুতুব উদ্দিন, মো. সালাউদ্দিন, তৌহিদুল সালাম, শাহজাহান মিয়া, মো. অনিক,মো. হাসান, শারাফাত উল্লাহ, আনিসুল হক, আলী হোসেনসহ মোট ৩২ জন আসামি রয়েছেন।
আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট মো. ইউসুফ বলেন, কোতোয়ালী থানার বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় বিএনপির ৩৫ জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের দিন আজ (সোমবার) ধার্য ছিল। আদালতে ৩৫ জন আসামি মামলা থেকে অব্যাহতির আবেদন করেন। এছাড়াও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা একজন আসামিকে মামলা থেকে অব্যাতির আবেদন করেন। আদালত উভয় পক্ষের শুনানি শেষে একজনকে অব্যাহতি দিয়ে ৩৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছেন।
মামলান নথি থেকে জানা যায়, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে ২০১৮ সালের ২১ অক্টোবর চট্টগ্রামের আদালতে একটি মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠিয়ে দেন। একইদিন বিকেলে নগরের কোতোয়ালী থানার লালদিঘী পাড় সোনালী ব্যাংকের সামনে থেকে টেরিবাজার পর্যন্ত সড়কে ব্যারিকেড দেয় বিএনপির নেতাকর্মীরা। এছাড়া সড়কে যান চলাচলে বাধা, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনাও ঘটে। এই ঘটনায় কোতোয়ালী থানায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করে। মামলার তদন্ত শেষে ২০১৯ সালে ৩ জুলাই পুলিশ ৩৫ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করেন।