দ্বিতীয় টেস্টে ভালো খেলতে আশাবাদী মাহমুদউল্লাহ

38

৪৮১ রানে পিছিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেছিল বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের বিশাল রানের নিচে চাপা পড়লেও বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা দারুণ লড়াই করেছে। ইনিংস ব্যবধানে হার মানলেও ৪২৯ রান নিঃসন্দেহে ভালো সংগ্রহ। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর বিশ্বাস, হ্যামিল্টনে দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিং দ্বিতীয় টেস্টে অনুপ্রাণিত করবে বাংলাদেশ দলকে।
দ্বিতীয় ইনিংসে সৌম্য সরকার (১৪৯) ও মাহমুদউল্লাহর (১৪৬) দুর্দান্ত সেঞ্চুরি বাংলাদেশের জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি। আগামী ৮ মার্চ ওয়েলিংটনে শুরু হতে যাওয়া দ্বিতীয় টেস্ট নিয়ে তাই আশাবাদী অধিনায়ক।
বোল্ট-সাউদি-ওয়াগনারদের সুইং আর বাউন্সার সামলে দারুণ ব্যাট করা সৌম্যর প্রশংসা করে মাহমুদউল্লাহ বলেছেন, ‘দ্বিতীয় ইনিংসে সৌম্য গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে। সে খুব স্বচ্ছন্দে ব্যাট করেছে, আর সুযোগ কাজে লাগিয়ে সেঞ্চুরিও করেছে।’
হ্যামিল্টন টেস্টের দুই ইনিংসেই দারুণ পারফরম্যান্স তামিমের। ১২৬ ও ৭৪ রানের দুটো আক্রমণাত্মক ইনিংস খেলা দেশসেরা ওপেনারের প্রশংসায় উচ্ছ¡সিত অধিনায়ক, ‘একটা সময় তামিমকে ওরা একের পর এক বাউন্সার মারছিল।
সেই সময় সে ভালো মতোই সারভাইভ করেছিল। কারণ সে দলের মধ্যে সবচেয়ে ভালো পুল আর হুক খেলে। আসলে এই টেস্টে তামিম অসাধারণ ব্যাট করেছে।’ আর নিজের ইনিংস নিয়ে মাহমুদউল্লাহর মূল্যায়ন, ‘আমি একটু সময় নিয়ে ব্যাট করার চেষ্টা করেছি। ওদের বোলারদের ক্লান্তি কাজে লাগিয়ে ভালো ব্যাটিংয়ের লক্ষ্য ছিল আমার।’
তিনজন দারুণ লড়াই করলেও চতুর্থ দিনেই হার মেনেছে বাংলাদেশ। সেজন্য প্রথম ইনিংসের ব্যর্থতাকে দায়ী করলেন মাহমুদউল্লাহ, ‘হ্যামিল্টনের উইকেট ব্যাটিং সহায়ক। কিন্তু আমরা প্রথম ইনিংসে ভালো ব্যাট করতে পারিনি। বড় সংগ্রহ গড়ার সুযোগ হাতছাড়া করেছি। তামিমের সঙ্গে আরেকজন বড় ইনিংস খেলতে পারলে ম্যাচের ফল অন্যরকম হতে পারতো।’