জামালখান ওয়ার্ড আ.লীগের সদস্য সংগ্রহ কর্মসূচি

17

গত ৫ মে বিকাল ৫টায় নগরীর প্রেসক্লাবস্থ ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল খালেক মিলনায়তনে ২১নং জামাল খান ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আওয়ামী লীগের সাধারণ সদস্য সংগ্রহ কর্মসূচি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হাশেম বাবুলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মিথুন রশ্মি বড়ুয়ার পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়।
সভার শুরুর প্রাক্কালে কুরআন তেলোয়াত, গীতা পাঠ ও ত্রিপিটক পাঠের মাধ্যমে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। উক্ত কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, প্রধান বক্তা ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন।
বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ হাসান মাহমুদ শমশের, দপ্তর সম্পাদক চন্দন ধর, মহানগর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য প্রকৌশলী বিজয় কিষাণ চৌধুরী। ওয়ার্ডের উপদেষ্টা পরিষদ, সভাপতি ও সম্পাদকন্ডমলীর সদস্য, ইউনিট আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য দেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, মো. সৈয়দুল আলম, হাজী মো. সাহাবুদ্দীন, মো. এনামুল হক, মো. আবু ফরহাদ চৌধুরী সাবু, আহমদ সোবহান, এটিএম শহীদুল্লাহ, মো. জাহাঙ্গীর আলম, পীযুষ বিশ্বাস, মো. আইয়ুব, রঞ্জন রশ্মি বড়ুয়া, জাহেদুল ইসলাম মঞ্জু, সুশীল মজুমদার, মো. সালাহ উদ্দিন, জিয়া উদ্দিন আহমদ, অনিল দাশ, শামসুদ্দীন নুরী, আবু হেনা মোস্তফা কামাল বাবলু, নবুওয়াত আরা ছিদ্দিকী রকি, পান্টু লাল সাহা, মো. সেলিম জাহাঙ্গীর, পিংকু দেব রায়, সৈয়দা সাহানারা বেগম, সাহেলা আবেদীন রিমা, মৃদুল কুমার দাশ, হাজী মুন্সি মিয়া, মোঃ জাহাঙ্গীর মোস্তফা, বাবুল দেব রায়, এটিএম আহসান উল্লাহ খোকন, ইকবাল আহমেদ ইমু, মোঃ জাহেদ মিয়া, স্বপন চৌধুরী খোকা, সায়েদুল হক, সুভাষ দেব, সাধন কান্তি বড়–য়া, কাঞ্চন চৌধুরী, হুমায়ুন কবির মাসুদ, সাহেদুর রহমান বাবু, ইসমাইল উদ্দিন লিটন, সুচিত্রা গুহ টুম্পা, শফিকুল আলম চৌধুরী, মো. শফিকুল ইসলাম, মো. হায়দার আলী, মো. হেলাল উদ্দিন রাশেদ, নুরুল আলম টুকু, মো. আমির উদ্দিন, অঞ্জন দত্ত, মো. দেলোয়ার, বিকাশ দাশ, মো. রবিউল হোসেন প্রমুখ।
প্রধান অতিথি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বাঙালি জাতীয়তাবাদ, গণতন্ত্র, ধর্ম নিরপেক্ষতা তথা সকল ধর্মের সমধিকার ও স্বাধীনতা নিশ্চতকরণ ও অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি এবং সমাজতন্ত্র তথা শোষণমুক্ত সমাজ ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা হবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মূলনীতি। এই নীতিতে যারা বিশ্বাস করে তারাই আওয়ামী লীগের সাধারণ সদস্য হতে পারবে।
প্রধান বক্তা আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সদস্য সংগ্রহ কর্মসূচি দলের গঠনতন্ত্রের একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। তৃণমূলকে সুসংগঠিত করতে হলে এই প্রক্রিয়াকে অব্যাহত রাখতে হবে। যারা দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা, অখন্ডতা, জাতীয় সংহতি, রাষ্ট্রীয় আদর্শ ও জননিরাপত্তা বিরোধী এবং হিংসাত্বক কার্যকলাপে লিপ্ত, দেশের নাগরিকত্ব পরিত্যাগকারী, অন্য রাজনৈতিক দলের সদস্য, ধর্ম, পেশা এবং জন্মগত শ্রেণি ও বর্ণের বৈষম্যে বিশ্বাস করেন ও দলের নীতি আদর্শ পরিপন্থি কার্যকলাপের সাথে যুক্ত তাদেরকে দলের সাধারণ সদস্যে অন্তর্ভুক্ত না করার নির্দেশনা দেন। বিজ্ঞপ্তি