জব্দ অটোরিকশা ফেলে দেয়া হলো খালে

42

মহাসড়কে সিএনজিচালিত অটোরিকশা চলাচল কোনভাবেই থামানো যাচ্ছে না। তাই আটকের পর খালে ফেলা দেয়া হলো সিএনজিচালিত অটোরিকশা। চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে তিন চাকার সিএনজিচালিত অটোরিকশা চলাচল নিষিদ্ধ। কিন্তু এরপরও বিভিন্ন শাখা রোড থেকে মহসড়কে উঠে আসে এই অটোরিকশা। কোনভাবেই এসব অটোরিকশা দমাতে পারছে না হাইওয়ে পুলিশ। তাই গতকাল সোমবার মহাসড়কে চলাচলের সময় হাইওয়ে পুলিশ কর্তৃক আটকের পর এসব অটোরিকশা ফেলে দেয় খালে। গতকাল সোমবার দুপুরে মনসা বাদামতল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
হাইওয়ে পুলিশ জানান, মহাসড়কে তিন চাকার গাড়ি চলাচল নিষিদ্ধ হলেও দীর্ঘদিন ধরে হাইওয়ে পুলিশকে ফাঁকি দিয়ে এসব গাড়ি চলাচল করছে। ফলে পটিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনা ঘটছে। পটিয়া-ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ মিজানুর রহমান প্রায়সময় অটোরিকশার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলেও পরবর্তীতে গাড়ির চালকরা মহাসড়কে নিষিদ্ধ এসব গাড়ি চলাচল করে। যার কারণে ভিন্ন অভিযানে হাইওয়ে পুলিশ গাড়ি আটক করে এবার খালে ফেলে দিয়েছে।
পটিয়া ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ মিজানুর রহমান বলেন, তিন চাকার গাড়ি মহাসড়কে চলাচল নিষিদ্ধ হলেও হঠাৎ করে অটোরিকশা চলাচল বেড়ে গেছে। ফলে মহাসড়কের পটিয়ায় দুর্ঘটনা ঘটছে। গাড়ি চালকদের নিষেধ করার পরও তারা তা না মানার কারণে গাড়ি আটক করে খালে ফেলে দিয়েছেন।