চন্দনাইশে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত

3

চন্দনাইশ প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চন্দনাইশে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় অটোরিকশা চালকসহ ২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুইজন।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গত ১৬ মে রাত সাড়ে ৯টায় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চন্দনাইশ রৌশনহাট বাজার এলাকায় সৌদিয়া পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস থেকে মো. ইকবাল হোসেন (২২) নামের এক যুবককে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিলে সে বাসের পিছনের চাকায় পিষ্ঠ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। ঘটনার পরপর উত্তেজিত জনতা সৌদিয়া পরিবহনের ২টি বাসসহ ৩টি যানবাহন ভাঙচুর করে। ফলে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রাম অভিমুখী সৌদিয়া পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস চন্দনাইশের মক্কা পেট্রোল পাম্পের পাশে একইদিক থেকে আসা যাত্রীবাহী ঈগল পরিবহনের সাথে ধাক্কা লাগে। এ সময় ঈগল পরিবহনের হেলপাররা সৌদিয়া বাসে উঠার চেষ্টা করলে সৌদিয়া বাসের চালক দ্রæত গাড়ি চালিয়ে চট্টগ্রাম অভিমুখে যেতে থাকে। মাঝপথে রৌশনহাট এলাকায় বাসটি চট্টগ্রামমুখী অপর একটি লেবুবোঝাই ট্রাককে ধাক্কা দিলে ট্রাকের কয়েকজন সৌদিয়া বাসে উঠে পড়ে। এ সময় উভয়ের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদের এক পর্যায়ে সৌদিয়া বাসের হেলপাররা ইকবালকে ধাক্কা দিয়ে বাস থেকে ফেলে দেয়। ইকবাল বাসের পিছনের চাকায় পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যায়। পরে সৌদিয়া বাসটি পালিয়ে যায়।
চন্দনাইশ থানার ওসি (তদন্ত) যুযুৎসু যশ চাকমা বলেন, ঘটনার পরপরই চন্দনাইশ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ এনে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করে।
অপরদিকে, একইদিন দুপুরে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের দোহাজারী দেওয়ানহাট সংলগ্ন এলাকায় অটোরিকশা ও পিকআপের মুখোমুখী সংঘর্ষে অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে অটোরিকশা চালক মো. ফরহাদ (২২) ও অপর ২ যাত্রী আহত হন। আহতদের স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ফরহাদকে মৃত ঘোষণা করেন। সে সাতকানিয়ার পূর্ব গাটিয়াডাঙ্গা এলাকার আবু তালেবের ছেলে। উভয় ঘটনার খবর পেয়ে দোহাজারী হাইওয়ে থানা পুলিশ নিহতদের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। ঘাতক পিকআপ ও সৌদিয়া বাস পালিয়ে যায়।
দোহাজারী হাইওয়ে থানার ওসি খান মোহাম্মদ এরফান বলেন, দুর্ঘটনার পরপর পুলিশ উভয় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে নিহতদের লাশ উদ্ধার এবং দুর্ঘটনা কবলিত সিএনজি অটোরিকশাটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।