চন্দনাইশে জসিম উদ্দীন চেয়ারম্যান নির্বাচিত

13

চন্দনাইশ প্রতিনিধি

চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ গতকাল সম্পন্ন হয়েছে। ২/১টি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট গ্রহণ হয়েছে বলে জানান ভোটার ও নির্বাচনী দায়িত্ব পালনকারী কর্মকর্তারা। ৬৮টি কেন্দ্রে ১ লক্ষ ৯১ হাজার ৬০৭ জন ভোটারের মধ্যে ৬০ হাজার ৭১৫ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করেন।
রিটার্নিং অফিসার শহিদুল ইসলাম প্রামানিক জানান, চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাচনে নাগরিক কমিটির চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দীন আহমেদ (মোটরসাইকেল) ৩৮ হাজার ৩৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু আহমেদ চৌধুরী (ঘোড়া) পেয়েছেন ২২ হাজার ৭৪ ভোট।
এছাড়া আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’য়াতের ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মাওলানা সোলাইমান ফারুকী (বৈদ্যুতিক বাল্ব) ৪৪ হাজার ৭’শ ১৩ ভোট পেয়ে ৩য় বারের মত বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রূপম দেব (উড়োজাহাজ) পেয়েছেন ৮ হাজার ২’শ ১৯ ভোট। এতে একরাম হোসেন (তালা) পেয়েছেন ৬ হাজার ৫৩০ ভোট। এছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী হওয়ায় খালেদা আকতার চৌধুরীকে ২য় বারের মত বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়।
গতকাল সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভোটে ২/১টি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। সপ্তাহব্যাপী যে ধরনের গুজব ছড়িয়ে ছিল, তা ঠেকিয়ে জাল ভোট, কেন্দ্র দখল, মারামারি, সংঘাত ছাড়াই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।
সরেজমিন দেখা যায়, সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ভোটারের ব্যাপক ভিড় ছিল না। মোট ভোটের ৩১.৮৩ শতাংশ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।
ভোটাররা জানান, স্বাধীনতার পর যতগুলো নির্বাচন হয়েছে সেসব নির্বাচনকে হার মানিয়ে প্রথম বারের মত কোন ধরনের অনিয়ম ছাড়াই একটি শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে।
বরমা মাইগাতা এলাকার ৭৯ বছরের মরিয়ম বেগম তার পুত্রবধূর সাথে ভোট দিতে যান। এছাড়া পৌরসভা হাজিরপাড়া সংলগ্ন বড়ুয়া পাড়ার ৭৮ বছরের লক্ষী রাণী বড়য়া তার নাতির সাথে ভোট দিতে গিয়ে অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, কোন রকম মারামারি, হানাহানি ছাড়া এ ধরনের নির্বাচন দেশ স্বাধীনের পর থেকে আর হয়নি।
ভোট চলাকালে বিভিন্ন কেন্দ্রে বিক্ষিপ্ত ঘটনায় আহতরা হলেন মধ্যম চন্দনাইশের আকতারুজ্জামান রবিউল (৪০), জোয়ারার আজমল হক (২৩), ধোপাছড়ির জাকির হোসেন (৪৫), জামিজুরীর আবুল হোসেন (৩৫), এনায়েত বাজারের মো. শাকিল (২৫), পৌরসভার মিজ্জির দোকান এলাকার মো. ওয়াহিদ (২৪) ও মো. মাহি (২১)। তাদেরকে চন্দনাইশ ও দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। তাদের মধ্যে আবুল হোসেনকে পরে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
এদিকে চন্দনাইশ সদর মহিলা মাদ্রাসা কেন্দ্রের কিছুদূরে ২ দফায় ৫ রাউন্ড গুলির শব্দ শোনা যায়। তবে এ সকল ঘটনা কেন্দ্রের আশেপাশে ঘটেনি বলে জানিয়েছেন নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা।