খালের জায়গা ছেড়ে দিলেই মুক্তি জলাবদ্ধতা থেকে : এমপি ছালাম

5

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে অতি বৃষ্টিতে নগরীর বায়েজীদ বোস্তামী থানাধীন পাঁচলাইশ ৩নং ওয়ার্ডের হাজীপাড়া, পূর্ব-শহীদ নগর, চাঁদের বাড়ি ও আংশিক কামরাবাদ এলাকায় সৃষ্ট জলাবদ্ধতায় নিমজ্জিত এলাকার জনসাধারণের দুঃখ-কষ্টের সাথী হতে পায়ে হেঁটে এলাকা পরিদর্শন করেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের কোষাধ্যক্ষ, চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য আবদুচ ছালাম।
এসময় তিনি সমবেতদের উদ্দেশ্যে বলেন, জলাবদ্ধতার দুর্দশা লাঘবে সবাই যদি সচেতন ও মানবিক হয়ে খালের জায়গা ছেড়ে দেন তবেই জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি সম্ভব। তিনি বাংলাদেশের গর্ব বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কাজের সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত¡াবধানে কাজ পরিচালনা হচ্ছে বলেই ইতিপূর্বে বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে নগরীতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হলেও পানি এখন দীর্ঘস্থায়ী হয় না। নগরীতে নির্বিচারে খাল ছরা, নালা-নর্দমা ভরাট ও দখলের কারণে স্বাভাবিক পানি নিষ্কাশনের পথ অনেকটাই বন্ধ ছিল। সেবা সংস্থাগুলোর সংস্কারের ফলে পানির প্রবাহ বৃদ্ধি পেয়েছে। পরে আবদুচ ছালাম এমপি পানিবন্দী জনসাধারণের মাঝে জন্য বিশুদ্ধ পানিসহ খাবার বিতরণ করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীর আলম, মো. শাহাজান, জিএস মো. কফিল উদ্দিন, মো. শরীফ, রণি দিদারী, মো. মুছা, মো. বাদশা, মো. আব্বাস আলি বাবলু, সাজ্জাদ হোসেন, প্রান্তি ভট্টাচার্য, মো. ওয়াসিম, সালাউদ্দিন, মো. মোর্শেদ, গোলাম মোস্তফা, আমিনুল করিম, নুরনবী সোহান, নুরনবী, আব্দুল মোনাফ, সরোয়ার হোসেন মুন্না, মো. ইসমাইল, আব্দুল হালিম, সাজ্জাদ হোসেন, সালাউদ্দিন মানিক প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি