‘ইতালি ফিরে যাও’, আমেথিতে রাহুলবিরোধী বিক্ষোভে কৃষকরা

43

লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে এসে উত্তর প্রদেশের আমেথিতে নিজের সংসদীয় আসনেই কৃষকদের ক্ষোভ ও প্রতিবাদের মুখোমুখি হলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। বুধবার আমেথির গৌরিগঞ্জ শহরে রাহুলের বিরুদ্ধে কৃষকরা বিক্ষোভ করে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি। কৃষকদের দাবি, তাদের কাছ থেকে নিয়ে রাজিব গান্ধী ফাউন্ডেশনকে যে জমি দেওয়া হয়েছিল, হয় সেগুলো ফিরিয়ে দেওয়া হোক, নয়তো তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হোক। লোকসভার প্রচারে বুধবারই আমেথি গিয়েছিলেন কংগ্রেস সভাপতি। “আমরা রাহুল গান্ধীকে নিয়ে খুবই হতাশ। তার ইতালি ফিরে যাওয়া উচিত। তিনি এখানে থাকার যোগ্য নন। রাহুল আমাদের জমি দখল করে রেখেছেন,” বার্তা সংস্থা এএনআইকে এমনটাই বলেছেন কৃষকবিক্ষোভে অংশ নেওয়া সঞ্জয় সিং। কৃষকরা সম্রাট সাইকেল ফ্যাক্টরির কাছেই ওই বিক্ষোভ দেখান বলে জানিয়েছে এনডিটিভি। ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী আমেথির সাংসদ থাকার সময় ফ্যাক্টরিটির উদ্বোধন করেছিলেন। গত শতকের ৮০-র দশকে জৈন ব্রাদার্স কৌসুরের শিল্পাঞ্চল থেকে ফ্যাক্টরির জন্য ৬৫ দশমিক ৫৭ একর জমি লিজ নিয়েছিল। কোম্পানিটি মুখ থুবড়ে পড়লে দেনা পরিশোধে ২০১৪ সালে জমিগুলো নিলামে ওঠে। নথি অনুযায়ী, উত্তর প্রদেশের ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট করপোরেশন (ইউপিএসআইডিসি) ১৯৮৬ সালে সম্রাট সাইকেল ফ্যাক্টরিকে দেওয়া হয়ছিল। কোম্পানিটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর দেনা পরিশোধে ট্রাইব্যুনালে নিলাম হলে জমিগুলো ২০ কোটি ১০ লাখ রুপিতে কিনে নেয় রাজীব গান্ধী দাতব্য ট্রাস্ট।

এজন্য কেবল কর বাবদই ট্রাস্টের খরচ হয় দেড় লাখ রুপি। গৌরিগঞ্জের সাবডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত পরে ওই নিলাম প্রক্রিয়াকে অবৈধ ঘোষণা করে এবং সম্রাট সাইকেল ফ্যাক্টরির জমিগুলো ইউপিএসআইডিসিকে ফিরিয়ে দেয়ার নির্দেশ দেয়।
এরপর থেকে কাগজে কলমে মালিক ইউপিএসআইডিসি হলেও রাজীব গান্ধী দাতব্য ট্রাস্ট এখনো জমিগুলোর দখল ধরে রেখেছে। কৃষকদের জমি দখলে রাখায় এর আগে বিজেপি নেত্রী ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি কংগ্রেস সভাপতিকে অভিযুক্তও করেছিলেন।