আহলে সুন্নাত চট্টগ্রাম জেলার ওলামা মাশায়েখ সম্মেলন

7

আহলে সুন্নাত ওয়াল জমাআত বাংলাদেশ চট্টগ্রাম জেলার আয়োজনে ওলামা মাশায়েখ সম্মেলন ও যোগদান অনুষ্ঠান ১৯ মে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবস্থ বঙ্গবন্ধু হলে অনুষ্ঠিত হয়। আহলে সুন্নাত কো-চেয়ারম্যান ও জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার শাইখুল হাদীছ আল্লামা হাফেজ সোলাইমান আনছারীর সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন আহলে সুন্নাত কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান আল্লামা কাযী মঈনুদ্দীন আশরাফী। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ধর্মীয় শিক্ষার স্বকীয়তা বজায় রেখে যুগোপযোগী আধুনিক শিক্ষাব্যবস্থা গড়ে তোলা সম্ভব।
বক্তারা দেশে শান্তি বজায় রাখার স্বার্থে ইসলাম বিদ্বেষী শক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করার আহবান জানান। শায়খুল হাদীস আল্লামা হাফেজ সোলাইমান আনছারী সভাপতির বক্তব্যে বলেন, নতুন শিক্ষা কারিকুলামে স্কুল ও মাদ্রাসা পর্যায়ের মূল্যায়ণ প্রক্রিয়ায় বৈষম্য আজ দৃশ্যমান। স্কুলের সব বিষয়ের মূল্যায়ন নৈপুণ্য এ্যাপসের মাধ্যমে সম্পন্ন হলেও মাদ্রাসার আরবি বিষয়গুলোর মূল্যায়ন পদ্ধতি সম্পর্কে এনসিটিবির পক্ষ হতে কোনো স্বচ্ছ ধারণা দেয়া হয়নি। প্রতিটি মাদ্রাসার রেজাল্ট দিতে হচ্ছে নতুন ও পুরোনো নীতির সমন্বয়ে। এ বিষয়ে দ্রæত সময়ে সুস্পষ্ট নীতিমালা প্রণয়ন করা প্রয়োজন। তিনি মাদ্রাসা শিক্ষার স্বাতন্ত্র্যিক ধারা ও ঐতিহ্য ধরে রেখে যোগ্য আলেমেদ্বীন গড়ে তুলতে প্রত্যেকটি দ্বীনি প্রতিষ্ঠানে যুগোপযোগী পদক্ষেপ করার আহবান জানান।
অধ্যাপক মুনিরুল ইসলাম আশরাফী, মাওলানা জসিম উদ্দিন মাহমুদ ও দস্তগীর আলমের সঞ্চালনায় শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর আহলে সুন্নাত সভাপতি মাওলানা শাহ নুর মুহাম্মদ আল কাদেরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন আহলে সুন্নাত স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ আল্লামা স উ ম আবদুস সামাদ, গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব পেয়ার মোহাম্মদ কমিশনার। প্রধান আলোচক ছিলেন আহলে সুন্নাত কেন্দ্রীয় নির্বাহী মহসচিব উপাধ্যক্ষ আল্লামা মুফতি আবুল কাশেম ফজলুল হক। কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ আল্লামা শাহ খলিলুর রহমান নেজামী, অধ্যক্ষ আল্লামা মুফতি হারুনুর রশীদ আশরাফী, অধ্যক্ষ আল্লামা তৈয়ব আলি প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি